Breaking News
Home / Health / ছয় কাজে ফুসফুস থাকবে সুরক্ষিত, সারাজীবন কাজে দিবে

ছয় কাজে ফুসফুস থাকবে সুরক্ষিত, সারাজীবন কাজে দিবে

চীনের উহান থেকে উৎপত্তি ঘটে করোনা ভাইরাসের। যা ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ে সারাবিশ্বে। মাঝে কিছু সময়ের জন্য করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক থাকলেও, আবারো বেড়েছে এর ভয়াবহতা। এর মধ্যেই প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের সংক্রমণে ঝরে গেছে অনেকের প্রাণ। তাইতো নিজেকে ও পরিবারকে বাঁচাতে আমাদের সবারই অনেক বেশি সতর্ক থাকা জরুরি।নিশ্চই জানেন, মহামারিতে রূপ নেয়া এই ভাইরাস ফুসফুসের সঙ্গে মিশে তার প্রাণঘাতী তাণ্ডব চালায়।

তাই এই সময় ফুসফুস ভালো রাখতে থাকতে হবে তৎপর। শ্বাস-প্রশ্বাসে কোনো ধরনের সমস্যা হলে সবসময় ক্লান্তি ও অলস ভাব দেখা দেয়। সেই সঙ্গে মাথা ঘোরা অনুভব হয়। এছাড়া ঠোঁট, নখ এবং ত্বকেও নীলচে ভাব দেখা দেয়। শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে শরীরে অক্সিজেন প্রবেশ করে। ফুসফুস সেটা গ্রহণ করে গোটা শরীরে ছড়িয়ে দেয়। এ কারণে ফুসফুসের সক্রিয় থাকাটা খুবই জরুরি।

তাই করোনার ভয়াল থাবা থেকে বাঁচতে এই সময়ে ফুসফুসের সুরুক্ষায় করুন ছয়টি কাজ। যা আপনার ফুসফুসের কার্যক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক এই সময়ে ফুসফুসের সুরক্ষায় যা করা জরুরি-

#ধুলো-বালি যথাসম্ভব এড়িয়ে চলুন। ঘরের বাইরে গেলে অবশ্যই মাস্ক পরে নিন।#ভিটামিন সি ফুসফুস ভালো রাখতে সাহায্য করে। এ জন্য কমলা, লেবু, আমলকি ও পেয়ারা খেতে পারেন।

#অক্সিজেন রক্তপ্রবাহে নেয়া ও রক্তপ্রবাহ থেকে অক্সিজেন বাতাসে ছেড়ে দিয়ে নিঃশ্বাসের গতি বাড়াতে পাকস্থলি থেকে শ্বাস নিন।#হতাশা মানুষের ফুসফুসের কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেয়। তাই করোনার মতো সময়ে জীবনের সুখের দিনগুলোর কথা বেশি বেশি স্মরণ করুন।

#কথায় আছে, দিনে অন্তত একটি আপেল খান আর চিকিৎসককে দূরে রাখুন। তথ্যটি আসলেই সঠিক। সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, সপ্তাহে পাঁচটির বেশি আপেল খেলে মানুষের ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়ে।

#ফুসফুসের ইনফেকশন ও নিউমোনিয়া সারাতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার ভালো কাজ করে। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট পেতে নিয়মিত খেতে হবে বেদানা, স্ট্রবেরি, দারুচিনি ও সবুজ চা।

এছাড়া শ্বাসকষ্ট বা ফুসফুসে সমস্যা দেখা দিলে অবহেলা না করে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

Check Also

মুখের গন্ধ দূর করার সাথে ১০ অসুখ ভালো হবে পান খেলে

পান পাতায় উপস্থিত একাধিক উপাদান নানাবিধ রোগের প্রকোপ হ্রাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *