Breaking News
Home / Health / ঠিক কোথায়, কখন আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস, স্পষ্ট করলো আবহাওয়া দফতর

ঠিক কোথায়, কখন আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস, স্পষ্ট করলো আবহাওয়া দফতর

প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস (cyclone yaas) রয়েছে পূর্ব মধ্য এবং সংলগ্ন পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরের ওপরে। যা এগোচ্ছে উত্তর পশ্চিম দিকে। গত ছয় ঘন্টা ধরে ইয়াস এগোচ্ছে ঘন্টায় ১৭ কিমি করে। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ১২ ঘন্টায় এই ঘূর্ণিঝড় আরও ঘনীভূত হয়ে অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে।

ইতিমধ্যে দিঘা-মন্দারমনি অঞ্চলে ব্যাপক ঝড় বৃষ্টি শুরু হয়েছে। জোয়ারে উত্তাল দিঘার সমুদ্র। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার ভরা জোয়ার ছিল বেলা সাড়ে ১১টা থেকে ১২টার মধ্যে। সেই সময় সমুদ্রে ব্যাপক জলোচ্ছ্বাস দেখা দিয়েছে।

এদিন সকাল সাড়ে পাঁচটায় জারি করা আবহাওয়া দফতরের স্পেশাল বুলেটিনে বলা হয়েছে, এদিন ভোর রাত আড়াইটে নাগাদ এর অবস্থান ছিল ১৭.৮ ডিগ্রি উত্তর অক্ষারংশ এবং ৮৮.৯ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশে। যা পারাদীপ থেকে ৩৬০ কিমি দক্ষিণ দক্ষিণ পূর্বে, বালাসোর থেকে ৪৬০ কিমি দক্ষিণ দক্ষিণ পূর্ব, দিঘা থেকে ৪৫০ কিমি দক্ষিণ দক্ষিণ পূর্বে এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়া থেকে ৪৮০ কিমি দক্ষিণ দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

ইতিমধ্যেই দিঘার কয়েকটি এলাকায় বাঁধ ছাপিয়ে গ্রামে জল ঢুকতে শুরু করেছে। সমুদ্রে ব্যাপক জলোচ্ছ্বাস চলছে। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রামনগর ১ নম্বর ব্লকের জামড়ার শ্যামপুর কাইমা গ্রামে সমুদ্রের বাঁধ উপচে গ্রামের মধ্যে জল ঢুকতে শুরু করেছে।

খবর পেয়ে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। রয়েছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরাও। প্রশাসনের আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে, ‘সোমবার রাতেই তাজপুর, জলধা-সহ সমুদ্র তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই সমুদ্রে ব্যাপক জলোচ্ছ্বাস হয়েছে। যার জেরে জামড়া, শ্যামপুর, তাজপুর প্রভৃতি এলাকার সমুদ্র বাঁধের অনেক জায়গায় জল গ্রামে ঢুকছে। শুরু হয়েছে রাস্তা কেটে জল বার করে দেওয়ার কাজ। এলাকার বাসিন্দাদেরও দ্রুত সরানো হয়েছে।”

Check Also

মুখের গন্ধ দূর করার সাথে ১০ অসুখ ভালো হবে পান খেলে

পান পাতায় উপস্থিত একাধিক উপাদান নানাবিধ রোগের প্রকোপ হ্রাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *