Breaking News
Home / Health / করোনা রোগীর অক্সিমিটার ও থার্মোমিটার ব্যবহার করতে পারেন কি বাড়ির অন্যরা? জেনে নিন
A pulse oximeter provides a quick read on the saturation of oxygen in your blood. Some doctors believe it is a helpful device to have at home during the coronavirus pandemic. Others aren't so sure.

করোনা রোগীর অক্সিমিটার ও থার্মোমিটার ব্যবহার করতে পারেন কি বাড়ির অন্যরা? জেনে নিন

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেশের অবস্থা খুবই শোচনীয়। প্রত্যেক দিনি প্রায় কয়েক লক্ষ মানুষ সংক্রমিত হচ্ছে। দ্বিতীয় ঢেউ অনেক বেশি ছোঁয়াচে বলে ইতিমধ্যেই প্রমাণিত। তাই এই অতিমারির সময় নিজেদের সুস্থ রাখতে সমস্ত সতর্কতা মেনে চলা এবং স্বাস্থ্যের প্রতি অতিরিক্ত যত্ন নেওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়ার সমস্যা নিয়ে প্রচুর মানুষ হাসপাতলে ভর্তি হচ্ছে, অনেকেই ফুসফুসের সমস্যায়ও ভুগছে। অনেকের মধ্যে আবার হ্যাপি হাইপক্সিয়া দেখা দিচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে প্রত্যেকেরই উচিত সময়মতো শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা এবং দেহের তাপমাত্রা পরীক্ষা করা।

আর অক্সিজেন ও তাপমাত্রা জানার সবচেয়ে সহজ উপায় হল অক্সিমিটার এবং থার্মোমিটারের ব্যবহার। কিন্তু বেশিরভাগ বাড়িতেই একাধিক অক্সিমিটার বা থার্মোমিটার মজুত থাকে না। তাই বাড়িতে যদি কোনও কোভিড রোগী থাকে, তার ব্যবহৃত সরঞ্জাম কী ব্যবহার করা নিরাপদ? এক্ষেত্রে কী করা উচিত, তা নিয়ে ধন্দ তৈরি হচ্ছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক এ ব্যাপারে।

আপনার আঙুল অক্সিমিটারে লাগিয়ে এক মিনিটের মতো রাখুন। রিডিং স্থির হলে সেটা এক জায়গায় তারিখ-সহ লিখে নিন। এভাবে আপনি আপনার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা খুব সহজেই জানতে পারবেন।

দেহের তাপমাত্রা জানার জন্য, থার্মোমিটারকে আপনার জিভের নিচে দেড় থেকে দুই মিনিট পর্যন্ত রাখুন। তারপর বের করে দেখে নিন আপনার দেহের তাপমাত্রা কত এবং সেটি একই জায়গায় লিখে রাখুন। আপনি জিভের নিচে যদি থার্মোমিটার না রাখতে চান, তাহলে বগলে দুই মিনিটের মতো থার্মোমিটার দিয়ে চেপে রাখুন।

গবেষণায় দেখা গেছে যে, করোনা ভাইরাস প্লাস্টিকের উপর কিছুক্ষণ থাকার পরে মারা যায়। তাই প্লাস্টিক বডি অক্সিমিটারগুলি হাসপাতালের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। একসাথে অসংখ্য করোনা রোগীর জন্য একটি অক্সিমিটার ব্যবহার করা হয়।

কারণ প্রত্যেকের জন্য এক একটা যন্ত্র রাখা অনেক ক্ষেত্রে সম্ভব হয়ে ওঠে না। কিন্তু অবশ্যই প্রত্যেক রোগীর ব্যবহারের পর তা যেন যথাযথভাবে পরিষ্কার করা হয়। আর থার্মোমিটার-এর ক্ষেত্রে, সেফটির কথা ভেবে সাধারণত প্রত্যেক রোগীর জন্য আলাদা আলাদা থার্মোমিটার ব্যবহার করা হয়।

বাড়ির ক্ষেত্রে, প্রত্যেক সদস্যের জন্য একটি করে থার্মোমিটার বা অক্সিমিটার রাখা সম্ভব নয়। বেশিরভাগ বাড়িতেই একটি করে থার্মোমিটার এবং অক্সিমিটার থাকে। বাড়িতে যদি কোনও সংক্রমিত রোগীর থার্মোমিটার এবং অক্সিমিটার বাড়ির অন্য সদস্যকে ব্যবহার করতে হয়, তবে অবশ্যই ব্যবহারের আগে যথাযথভাবে অক্সিমিটার এবং থার্মোমিটার পরিষ্কার করে নিন।

Check Also

মুখের গন্ধ দূর করার সাথে ১০ অসুখ ভালো হবে পান খেলে

পান পাতায় উপস্থিত একাধিক উপাদান নানাবিধ রোগের প্রকোপ হ্রাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *